মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রাকৃতিক সম্পদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার প্রাকৃতিক সম্পদের মধ্যে বাঞ্ছারামপুর উপজেলায়  মেঘনা গ্যাস ফিল্ড অন্যতম

 অবস্থান: গ্রাম: বাখরনগর,ডাকঘর: মরিচাকান্দি, ‍উপজেলা: বাঞ্ছারামপুর, জেলা: ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার প্রাকৃতিক সম্পদ সমূহ:

তিতাস গ্যাসক্ষেত্র

 

দেশের বৃহত্তম গ্যাসক্ষেত্রগুলির মধ্যে একটি এবং বর্তমান সময় পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ গ্যাস উৎপাদনকারী ক্ষেত্র। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় অবস্থিত এই গ্যাসক্ষেত্রটি ১৯৬২ সালে পাকিস্তান শেল অয়েল কোম্পানি আবিষ্কার করে।  ২০০০ সাল পর্যন্ত এখানে ১৪ টি কূপ খনন করা হয়েছে। ৬৪ বর্গ কিলোমিটার ব্যাপী বিস্তৃত এই ক্ষেত্রটি ভূ-গঠন গম্বুজাকৃতির। গ্যাস উৎপাদিত বালুকণাগুলির স্তর অধিকাংশই ২,৬১৬ মিটার থেকে ৩১২৪ মিটার গভীরতম মধ্যে। তিতাস গ্যাসক্ষেত্রের মোট অনুমিত মজুত প্রায় ৪.১৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট যার মধ্যে উত্তোলনযোগ্য মজুত ২.১ ট্রিলিয়ন ঘনফুট। ২০০০ সালের শেষ পর্যন্ত এই গ্যাসক্ষেত্র থেকে মোট ১.৭২ টিসিএফ গ্যাস উত্তোলন করা হয়েছে যা মোট উত্তোলনযোগ্য মজুতের প্রায় ৭৫ ভাগ।

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় প্রাকৃতিক সম্পদের মধ্যে

 

সালদানদী গ্যাসক্ষেত্র

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় অবস্থিত। ১৯৯৬ সালে বাপেক্স গ্যাসক্ষেত্রটি খনন করে যার গভীরতা ২৫১২ মিটার। বর্তমানে এই গ্যাসক্ষেত্রটি থেকে গ্যাস উৎপাদন করা হচ্ছে।

 

গ্যাস উৎপাদন:

 

তিতাস গ্যাস ক্ষেত্র ৪৪৩৮ মি:লি: ঘনফুট

 

সালদা নদী গ্যাস ক্ষেত্র ১৩৪ মিলি: ঘনফূট


গ্যাস মজুদ ও উৎপাদন (বিলিয়ন ঘনফুট)

 

নাম

আবিষ্কার

মওজুদ নিরূপন

উত্তোলনযোগ্য

এ যাবৎ উৎপাদন

অবশিষ্ট উত্তোলনযোগ্য

তিতাস

১৯৬২

২০০১

৫১২৭

২৪৬৮.৭

২৬৫৮.৮

সালদা নদী

১৯৯৬

১৯৯৬

১১৬.১

৪৩.৭

৭২.৪

মেঘনা

১৯৯০

১৯৯২

১১৯.৬

৩৪.৮

৮৪.৮