মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিস

ভূমি মন্ত্রনলয়াধীন উপজেলা কার্যালয়।সহকারী সেটেলমেন্ট  অফিসারের কার্যালয়,সাবেক কোর্ট বিল্ডিং।বাঞ্ছারামপুর,ব্রাহ্মনবাড়িয়া।

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

স্তরের নাম

সেবার ধরন,বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

বিজ্ঞপ্তি প্রচার

জরিপ শুরুর পূর্বে মাইকিং ও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তিসহ ব্যপক জনসংযোগ করা হয়। এই সময় ভূমির মালিকগণকে নিজ নিজ জমির আইল/সীমানা চিহৃিত করে রাখতে হবে।

সেটেলমেন্ট অফিসার/ সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

ট্রাভার্স

মৌজার নকসা সম্পর্ন নতুন করে প্রস্ত্তত করতে যে খুটি স্থাপন করা হয় সেটাই ট্রাভার্স।

ট্রাভার্স ক্যাম্প কর্মকর্তা/ ট্রাভার্স সার্ভেয়ার।

কিসেত্মায়ার

এইসত্মরে আমিন দল প্রতিখন্ড জমি পরিমাপ করে মৌজার নকশা অংকনের মাধ্যমে কিসেত্মায়ার অথবা বুল প্রিন্টে। পুরোনো নকশা সংশোধন করেন।

আমিন দল / হলকা অফিসার

খানাপুরী

কিসেত্মায়ার সত্মরে অংকিত নকশার প্রত্যেকটি দাগের জমিতে উপস্থিত হয়ে আমিন দল জমির দাগ নম্বর প্রদান করেন। এবং মালিকের রেকর্ড, দলিলপত্র ও দখল যাচাই করে মালিকের নাম, ঠিকান ও অনান্য তথ্য খতিয়ানের লিপিবদ্ধ করেন। এ সত্মরে ভূমি মালিকদের কাজ হচ্ছে আমিন দলকে জমির মালিকানা ও দখল সংক্রামত্ম প্রমানাদি উপস্থাপন করা।   

সরদার আমি / হলকা অফিসার

 

 

 

বুঝারত

বুঝারত অর্থ জমি বুঝিয়ে দেওয়া। এ সত্মরে আমিন দল কৃর্তক খতিয়ান বা পর্চা মালিককে সরবারাহ করা হয় যা মাঠ পর্চা নামে পরিচিত।

সরদার আমিন/ হলকা অফিসার

খানাপুরী কাম বুঝারত

যখন কোন মৌজা ব্লু প্রিন্টে সিটে জরিপ করা হয় তখন উপরে  বর্ণিত খানাপুরী ও বুঝারত সত্মরের কাজ এক সাথে করা হয়।

সরদার আমিন/ হলকা অফিসার

তসদিক বা এ্যাটেষ্টশন

ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে তসদিক সত্মরের কাজ  সম্পাদিত হয় ক্যাম্প অফিসে। তসদিক সত্মরের কাজ সম্পাদন করেন একজন রাজ্বস অফিসার। জমির মালিকানা সক্রামত্ম সকল কাগজপত্র ও প্রমানাদি যাচাই করে প্রতিটি বুঝারত খতিয়ান সত্যয়ন করা হয় এ সত্মরে ও ভূমি মালিকগন পর্চা ও নকশা কোন  সংশোধন প্রয়োজন মনে করলে বিবাদ দাখিল করতে পারেন এবং উপযুক্ত প্রমাণ উপস্থাপন করে তা সংশোধনের সুযোগ নিতে পারেন তাই এ সত্মরের কাজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ

তসদিক অফিসার / উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 

খসড়া প্রকাশনা (ডিপি) ও আপত্তি দায়ের

তসদিকের পর জমির প্রণীত রেকর্ড সর্বসাধারণের প্রদর্শনের জন্য ৩০দিন উম্মুক্ত রাখা হয় এ সময় কাল ভূমির মালিকগন নামের অদ্যক্ষর অনুযায়ী খতিয়ান বা পর্চা বর্ণানুক্রমিক ক্রমবিন্যাস করে খতিয়ানের নতুন নম্বর অর্থাৎ ডিপি নম্বটি সংগ্রাহের জন্য ভূমির মালিকগণকে নিজ নিজ পর্চাসহ খসড়া প্রকার্শনা (ডিপি) ক্যাম্পে উপস্থিত হতে হয়। ডিপিতে প্রকার্শিত খতিয়ান সম্পর্কে কার কোন আপত্তি বা দাবী থাকলে সরকারের নির্ধারিত ১০টাকার কোর্ট ফি দিয়ে নির্দিষ্ট ফরম পূরর্ণের মাধ্যমে ৩০বিধি অনুযায়ী দায়ের করা যাবে।

উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার ।

 

আপত্তি শুনানী/ আপীল শুনানী

ডিপি চলাকালে গৃহিত আপত্তি মামলা সমূহ সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে নোটিশ মারফত জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শুনানী গ্রহণ করে নিষ্পত্তি করা হয়। পক্ষগণ নিজে অথবা প্রয়োজনে মনোনীত প্রতিনিধির মাধ্যমে নিজ নিজ দাবী আপত্তি অফিসারের নিকট উপস্থাপন করতে পারেন। আপত্তি অফিসার পক্ষগণকে শুনানী দিয়ে রায় কেইস নথিতে লিপিবদ্ধ করে তার সিদ্ধামত্ম জানাবেন এবং খতিয়ান বা রেকর্ডে প্রয়োজনীয় সংশোধন করবেন।

আপত্তি অফিসার/ সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 

আপত্তি রায়ে সংক্ষুদ্ধ পক্ষ ৩১ বিধিতে আপিল দায়ের করতে পারেন। নির্দিষ্ট কোট ফি সহ সেটেলমেন্ট অফিসার বরাবর আবেদন দাখিলের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট আপত্তি মামলার রায় গ্রহণ করতে হবে। নির্দিষ্ট ফরম পূরণের মাধ্যমে রায়ের নকলসহ আপিল দায়ের করতে হবে। আপিল অফিসার মহোদয় সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে নোটিশের মাধ্যমে জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শোনানী গ্রহণ  করে আপিল নিষ্পত্তি করা হয়।

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার/চার্জ অফিসার।

চুড়ামত্ম প্রকাশনা

উপরোক্ত সত্মরে মুদ্রিত নকশা ও খতিয়ান সংশ্লিষ্ট মৌজার সর্ব জন সাধারনকে নোটিশের মাধ্যমে ঢোল বাজাইয়া ত্রিশ(৩০) কার্য দিবসের জন্য চুড়ামত্ম প্রকাশনা দেওয়া হয়। নিম্ন বর্ণিত হারে নকশা ও পর্চা সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যে ক্রয় করতে পারেন।

 

ক্রমিক নং

আইটেমের নাম

নির্ধারিত মূল্য

০১

 মৌজা ম্যাপ  (মুদ্রিত)

৩৫০.০০ টাকা

০২

খতিয়ান মুদ্রিত

৬০.০০ টাকা

স্তরের নাম

সেবার ধরন,বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

বিজ্ঞপ্তি প্রচার

জরিপ শুরুর পূর্বে মাইকিং ও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তিসহ ব্যপক জনসংযোগ করা হয়। এই সময় ভূমির মালিকগণকে নিজ নিজ জমির আইল/সীমানা চিহৃিত করে রাখতে হবে।

সেটেলমেন্ট অফিসার/ সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

ট্রাভার্স

মৌজার নকসা সম্পর্ন নতুন করে প্রস্ত্তত করতে যে খুটি স্থাপন করা হয় সেটাই ট্রাভার্স।

ট্রাভার্স ক্যাম্প কর্মকর্তা/ ট্রাভার্স সার্ভেয়ার।

কিসেত্মায়ার

এইসত্মরে আমিন দল প্রতিখন্ড জমি পরিমাপ করে মৌজার নকশা অংকনের মাধ্যমে কিসেত্মায়ার অথবা বুল প্রিন্টে। পুরোনো নকশা সংশোধন করেন।

আমিন দল / হলকা অফিসার

খানাপুরী

কিসেত্মায়ার সত্মরে অংকিত নকশার প্রত্যেকটি দাগের জমিতে উপস্থিত হয়ে আমিন দল জমির দাগ নম্বর প্রদান করেন। এবং মালিকের রেকর্ড, দলিলপত্র ও দখল যাচাই করে মালিকের নাম, ঠিকান ও অনান্য তথ্য খতিয়ানের লিপিবদ্ধ করেন। এ সত্মরে ভূমি মালিকদের কাজ হচ্ছে আমিন দলকে জমির মালিকানা ও দখল সংক্রামত্ম প্রমানাদি উপস্থাপন করা।   

সরদার আমি / হলকা অফিসার

 

 

 

বুঝারত

বুঝারত অর্থ জমি বুঝিয়ে দেওয়া। এ সত্মরে আমিন দল কৃর্তক খতিয়ান বা পর্চা মালিককে সরবারাহ করা হয় যা মাঠ পর্চা নামে পরিচিত।

সরদার আমিন/ হলকা অফিসার

খানাপুরী কাম বুঝারত

যখন কোন মৌজা ব্লু প্রিন্টে সিটে জরিপ করা হয় তখন উপরে  বর্ণিত খানাপুরী ও বুঝারত সত্মরের কাজ এক সাথে করা হয়।

সরদার আমিন/ হলকা অফিসার

তসদিক বা এ্যাটেষ্টশন

ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে তসদিক সত্মরের কাজ  সম্পাদিত হয় ক্যাম্প অফিসে। তসদিক সত্মরের কাজ সম্পাদন করেন একজন রাজ্বস অফিসার। জমির মালিকানা সক্রামত্ম সকল কাগজপত্র ও প্রমানাদি যাচাই করে প্রতিটি বুঝারত খতিয়ান সত্যয়ন করা হয় এ সত্মরে ও ভূমি মালিকগন পর্চা ও নকশা কোন  সংশোধন প্রয়োজন মনে করলে বিবাদ দাখিল করতে পারেন এবং উপযুক্ত প্রমাণ উপস্থাপন করে তা সংশোধনের সুযোগ নিতে পারেন তাই এ সত্মরের কাজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ

তসদিক অফিসার / উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 

খসড়া প্রকাশনা (ডিপি) ও আপত্তি দায়ের

তসদিকের পর জমির প্রণীত রেকর্ড সর্বসাধারণের প্রদর্শনের জন্য ৩০দিন উম্মুক্ত রাখা হয় এ সময় কাল ভূমির মালিকগন নামের অদ্যক্ষর অনুযায়ী খতিয়ান বা পর্চা বর্ণানুক্রমিক ক্রমবিন্যাস করে খতিয়ানের নতুন নম্বর অর্থাৎ ডিপি নম্বটি সংগ্রাহের জন্য ভূমির মালিকগণকে নিজ নিজ পর্চাসহ খসড়া প্রকার্শনা (ডিপি) ক্যাম্পে উপস্থিত হতে হয়। ডিপিতে প্রকার্শিত খতিয়ান সম্পর্কে কার কোন আপত্তি বা দাবী থাকলে সরকারের নির্ধারিত ১০টাকার কোর্ট ফি দিয়ে নির্দিষ্ট ফরম পূরর্ণের মাধ্যমে ৩০বিধি অনুযায়ী দায়ের করা যাবে।

উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার ।

 

আপত্তি শুনানী/ আপীল শুনানী

ডিপি চলাকালে গৃহিত আপত্তি মামলা সমূহ সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে নোটিশ মারফত জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শুনানী গ্রহণ করে নিষ্পত্তি করা হয়। পক্ষগণ নিজে অথবা প্রয়োজনে মনোনীত প্রতিনিধির মাধ্যমে নিজ নিজ দাবী আপত্তি অফিসারের নিকট উপস্থাপন করতে পারেন। আপত্তি অফিসার পক্ষগণকে শুনানী দিয়ে রায় কেইস নথিতে লিপিবদ্ধ করে তার সিদ্ধামত্ম জানাবেন এবং খতিয়ান বা রেকর্ডে প্রয়োজনীয় সংশোধন করবেন।

আপত্তি অফিসার/ সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 

আপত্তি রায়ে সংক্ষুদ্ধ পক্ষ ৩১ বিধিতে আপিল দায়ের করতে পারেন। নির্দিষ্ট কোট ফি সহ সেটেলমেন্ট অফিসার বরাবর আবেদন দাখিলের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট আপত্তি মামলার রায় গ্রহণ করতে হবে। নির্দিষ্ট ফরম পূরণের মাধ্যমে রায়ের নকলসহ আপিল দায়ের করতে হবে। আপিল অফিসার মহোদয় সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে নোটিশের মাধ্যমে জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শোনানী গ্রহণ  করে আপিল নিষ্পত্তি করা হয়।

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার/চার্জ অফিসার।

চুড়ামত্ম প্রকাশনা

উপরোক্ত সত্মরে মুদ্রিত নকশা ও খতিয়ান সংশ্লিষ্ট মৌজার সর্ব জন সাধারনকে নোটিশের মাধ্যমে ঢোল বাজাইয়া ত্রিশ(৩০) কার্য দিবসের জন্য চুড়ামত্ম প্রকাশনা দেওয়া হয়। নিম্ন বর্ণিত হারে নকশা ও পর্চা সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যে ক্রয় করতে পারেন।

 

ক্রমিক নং

আইটেমের নাম

নির্ধারিত মূল্য

০১

 মৌজা ম্যাপ  (মুদ্রিত)

৩৫০.০০ টাকা

০২

খতিয়ান মুদ্রিত

৬০.০০ টাকা

ছবি নাম মোবাইল
মোঃ মোতাহের হোসেন খন্দকার 01830377084

ছবি নাম মোবাইল
মোঃ মোতাহের হোসেন খন্দকার 01830377084

ছবি নাম মোবাইল

0

উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিস,সাবেক কোর্ট ভবন,বাহ্ছারামপুর,ব্রাহ্মণবাড়িয়া। ফো-01830377084

। নৌকা, লঞ্চ

২। সি.এন.জি, মাইক্রো, অটোরিক্সা, নসিমন, ট্রাক।

বাঞ্ছারামপুর উপজেলা হতে অন্যান্য উপজেলায় যাতায়াতের তথ্যাবলী

 

বাঞ্ছারামপুর উপজেলা-০১।  বাঞ্ছারামপুর সদর হোমনা হয়ে মুরাদনগর, কোম্পানীগঞ্জ, শহরস্থ কাউতলী/পৈরতলা বাস স্ট্যান্ড হতে বাসযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ,

০২। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হতে ট্রেনে/বাসে নরসিংদীর বেলানগর লঞ্চ ঘাট হতে লঞ্চ/স্পিড বোর্ডে

মরিচাকান্দি হয়ে টেম্পু/সিএনজিযোগে বাঞ্ছারামপুর সদর।

০৩। ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ গোকর্ণ ঘাট হতে লঞ্চযোগে নবীনগর ভায়া হয়ে বাঞ্ছারামপুর সদর।

 

আখাউড়া উপজেলা -০১। রেলপথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হতে আখাউড়া।

০২। ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ কাউতলী স্ট্যান্ডহতে টেম্পু/সিএনজি যোগে আখাউড়া সদর।

 

 

কসবা উপজেলা -০১। রেলপথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হতে কসবা।

০২। ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ কাউতলী/পৈরতলা বাস স্ট্যান্ড হতে বাসযোগে কসবা সদর

 

 

আশুগঞ্জ উপজেলা-   ০১। রেলপথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হতে কসবা।

০২। ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ কাউতলী/পৈরতলা বাস স্ট্যান্ড হতে বাসযোগে আশুগঞ্জ সদর

 

 

সরাইল উপজেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ কাউতলী/পৈরতলা/মেড্ডবাসস্ট্যান্ড হতে বাস/টেম্পু/সিএনজিতে বিশ্বরোড মোড়। 

তারপর টেম্পু/সিএনজিতে সরাইল উপজেলা সদর।

 

 

নাছিরনগর উপজেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ কাউতলী/পৈরতলা/মেড্ডা বাসস্ট্যান্ড হতে বাস/টেম্পু/সিএনজিতে বিশ্বরোড মোড়।

তারপর টেম্পু/সিএনজিতে নাছিরনগর উপজেলা সদর।

 

নবীনগর উপজেলা- ০১।ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ গোকর্ণঘাট হতে লঞ্চযোগে নবীনগর সদর।

০২। ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরস্থ কাউতলী/পৈরতলা হতে কোম্পানীগঞ্জ হয়ে নবীনগর সদর।

 

বাঞ্ছারামপুর হতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাসহ অন্যান্য উপজেলার দূরত্ব

 

উপজেলার নামদূরত্ব
আখাউড়া উপজেলা২৬ কিঃ মিঃ
কসবা উপজেলা৩৪ কিঃ মিঃ
আশুগঞ্জ উপজেলা২৫ কিঃ মিঃ
সরাইল উপজেলা১৪ কিঃ মিঃ
নাছিরনগর উপজেলা২৯ কিঃ মিঃ
বাঞ্ছারামপুর উপজেলা৮২ কিঃ মিঃ
নবীনগর উপজেলা৭৬ কিঃ মিঃ